বন্দিদশার অবসান: আনন্দের না বিভীষিকার

পৃথিবীর অনেক দেশেই লকডাউন তুলে নেওয়া হয়েছে। বাংলাদেশও এর ব্যতিক্রম নয়। সংক্রমণের হার এখনও তুঙ্গে, তবুও আমরা আমাদের গুহামানবীয় কড়চার ইতি এখানেই টানবো বলে ঠিক করেছি এবং গল্পের পরের অধ্যায় লেখা আরম্ভ করেছি যার নাম – “বন্দিদশার অবসান”। তিনমাসের অধিক সময় কবুতরের খোপে বন্দি থাকার পর প্রথম যখন অফিসে যোগদান করার ইমেইলটি পেলাম, বুকটা কেমন যেন ধক করে কেঁপে উঠেছিল। আমার তো খুশি হওয়ার কথা, কিন্তু আমি ছিলাম ভীত-সন্ত্রস্ত। কেন? বন্দিদশার অবসান কি সত্যিই আনন্দময় না বিভীষিকাময়?

Read More

Lockdown Unlocked: Utopia or Dystopia

During this pandemic, countries around the world implemented strict nationwide lockdown. Bangladesh was no exception. The contamination rate is still surging, yet we have decided to put an end to our caveman chronicles and start the next chapter of the story – “Lockdown Unlocked”. After being cooped up at home for more than three months, when I received the email saying that I would have to join the workplace from the next week, my heart skipped a beat. Instead of feeling elated, I was appalled. Why? Is “Lockdown Unlocked” a Utopia or a Dystopia?

Read More

সঙ্গনিরোধের নির্ঘণ্ট : আপনার সোনামণির দিনগুলোকে কীভাবে আনন্দময় করে তুলবেন

বাংলাদেশে ইতোমধ্যেই লকডাউন তুলে নেওয়া হয়েছে, কিন্তু মহামারীর শঙ্কা এখনও কাটেনি। এই মহামারীর প্রভাব শুধুমাত্র শারীরিক নয়, মানসিকও। শিশুদের মনে এর প্রভাব পড়ছে সবচেয়ে বেশি। খেলার মাঠ ছেড়ে এখন ছোট্ট শিশুরা চারদেয়ালে বন্দি। এই বন্দিজীবনে খানিকটা খুশির আলো ছড়াতে আজকের এই আবোলতাবোল আলাপ। শৈশবের রঙ্গে রঙিন মা-পিডিয়ার আজকের আয়োজন।

Read More

Baby’s (No) Day Out: Make It a Quali-rantine for Your Lil Star

The lock-down is over in Bangladesh, but the risk of the pandemic is not. This virus will leave a perpetual imprint in our mind. The children are suffering badly with zero option to go out and play. The pandemic has landlocked them in their own apartments. As a little effort to make this cave life a bit elated, I decided to brew my maa-pedia with a pinch of childhood –

Read More

একজন “খণ্ডকালীন” মায়ের দু’মুঠো আলাপ

ঘরে বসে অফিস – আমাদের পাতে যুক্ত হওয়া নতুন ব্যঞ্জন। কিন্তু ঘরে বসে অফিসের কাজ শুনতে যতোটা বিলাসিতা মনে হয়, বাস্তবে তা নয়। যখন জুম মিটিং এর মুঠোবার্তা মোবাইলের স্ক্রীনে উঁকি দিচ্ছে, তখন হয়তো বাচ্চার পছন্দের “বেবি শার্ক” বেজে চলেছে মুঠোফোনে। অফিসের দিনলিপি লেগোর টুকরোর নিচে চাপা পড়ে গিয়েছে কখন, মা হয়তো টেরও পাননি। ভিডিও কনফারেন্সের মাঝে কখনও বিশেষ অতিথিরও আগমন ঘটে মায়ের কোলে, যখন খেলনাবাটি নিয়ে খেলতে খেলতে মহাশয় হয়রান হয়ে পড়েন আর কান্না জুড়ে দেন। এই পরিস্থিতি এখন নিত্যদিনের, যা পুরোনো এক বিতর্ককে নতুন করে উসকে দেয় – কর্মজীবী মা বনাম গৃহিণী মা।

Read More

From the Platter Of a “Part-Time Mom”

Working-from-home has been the zingy cup of tea that hasn’t been served before. But it’s not as utopic as it sounds. The push notification of Zoom Meeting Link pops over the thumbnail of Baby Shark playing on the mobile phone. Office planner gets buried under the pile of lego bricks. Sometimes, the virtual meeting gets a special guest online sitting on the mother’s lap when the toddler gets bored with his toys and begins to whine. This phenomenon has been the story of every working mom nowadays that has stirred up an old debate again – The working mom vs stay-at-home mom.

Read More